আজ ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

মানবদেহে করোনা ভ্যাকসিনের পরীক্ষায় সফল হয়েছে রাশিয়া

বিশ্বে প্রথমবারের মতো মানবদেহে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের সফল প্রয়োগ হয়েছে বলে ঘোষণা করল রাশিয়ার সেশনভ ফার্স্ট মস্কো স্টেট মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা।

নভেল করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কারের লক্ষ্যে এটা বড় ধরনের সাফল্য পাওয়ার দাবি করেছেন রাশিয়ার একদল বিজ্ঞানী। রুশ বিজ্ঞানীদের দাবি, গামালেই ইনস্টিটিউট অব এপিডেমোলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজিতে তৈরি করা করোনার ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা সফল হয়েছে, যা বিশ্বে এই প্রথম। রুশ সংবাদ সংস্থা তাস এ খবর জানিয়েছে।

একদল স্বেচ্ছাসেবকের ওপর এ ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চালানো হয়েছে বলে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন ইন্সটিটিউট অব ট্রান্সন্যাশনাল মেডিসিন অ্যান্ড বায়োটেকনোলজির পরিচালক ভাদিম তারাসোভ।

জানা গেছে, ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী স্বেচ্ছাসেবকদের প্রথম দলকে আগামী বুধবার (১৫ জুলাই) ছেড়ে দেওয়া হতে পারে। আর দ্বিতীয় দলটি আগামী ২০ জুলাই বাড়ি ফিরতে পারবে বলে জানানো হয়েছে।

রাশিয়ার গামালেই ইনস্টিটিউট অব এপিডেমোলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজি তৈরি করোনার এ ভ্যাকসিনটি। গত ১৮ জুন সেশনভ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভ্যাকসিনটির ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা শুরু হয়। এ পরীক্ষায় সফলতার সঙ্গে উত্তীর্ণ হয়েছে ভ্যাকসিনটি।

সেশনভ বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম পরিচালক অ্যালেকজান্দ্রা লুকাসেভ জানিয়েছেন, পরীক্ষার এ পর্যায়ের মূল লক্ষ্য ছিল মানব শরীরে এ ভ্যাকসিন কতটা নিরাপদ তা খতিয়ে দেখা। এই পরীক্ষা সাফল্যের সঙ্গে শেষ হয়েছে। তিনি বলেন, ‘এ ভ্যাকসিন সম্পূর্ণ নিরাপদ। ক্লিনিক্যাল টেস্টেই তা প্রমাণিত হয়েছে।’ আরো ভ্যাকসিন তৈরির চিন্তাভাবনা তাদের আছে বলে জানিয়েছে ওই রুশ বিশ্ববিদ্যালয়টি।

এর আগে করোনার চিকিৎসায় রেমডেসিভির ওষুধ নিয়ে আশার আলো দেখা গিয়েছিল। পরে ইতালি দাবি করেছিল, তাঁরা কোভিড-১৯-এর ভ্যাকসিন বা প্রতিষেধক আবিষ্কার করে ফেলেছে। এর আগেও একাধিকবার করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন অথবা প্রতিষেধক তৈরির খবর সামনে এসেছে। পরে আবার তা হতাশও করেছে। তবে রুশ বিজ্ঞানীদের দাবি সত্যি হলে, করোনার মোকাবিলায় সফল হওয়া যাবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ